বাণী, অধ্যক্ষ (ভার:), হলি ল্যান্ড কলেজ

সম্মানিত অভিভাবক ও স্নেহভাজন শিক্ষার্থীবৃন্দ,

আস্সালামু আলাইকুম।

হলি ল্যান্ড কলেজ বৃহত্তর দিনাজপুবাসির ভালোবাসায় সিক্ত, শিক্ষাবান্ধব পরিবেশে প্রায় এক হাজার ছাত্র-ছাত্রীর কলরবে মুখরিত, শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত একটি প্রতিষ্ঠান। যথোপযুক্ত শিক্ষা প্রদানকে প্রতিষ্ঠানে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয়ে থাকে। এখানে মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে দক্ষ শিক্ষকমন্ডলীর দ্বারা ক্লাস পরিচালনা করা হয়। কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাফল্য নির্ভর করে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক-পরিচালনা পর্ষদ এর চতুর্মুখী প্রচেষ্টার ওপর। আমাদের এ প্রচেষ্টা নিরন্তন ও সার্বক্ষণিক।

অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, প্রতি বছরের ন্যায় ২০১৯ সালে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৯৮ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ সহ শতভাগ কৃতকার্য হয়েছে এবং প্রথমবারের মতো ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে ৪০ জন শিক্ষার্থী উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ০৭ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ সহ সকলেই কৃতকার্য হয়েছে। এখানে উল্লেখ্য যে, তাদের কারও এসএসসি-তে জিপিএ ৫ ছিল না। এছাড়াও ২০১৯ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান শাখায় নবম শ্রেণিতে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করিয়েছে। বিষয়টিতে আগামী দিনের ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী, অভিভাবকবৃন্দ ও সুধীজনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলো।

এ প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০১২ সালে মাত্র ৯২ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৭৫৩ জন। বোর্ড পরীক্ষায় এ প্রতিষ্ঠানের পাসের হার সন্তোষজনক। প্রতি বছর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী বুয়েট, সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে।

সহশিক্ষামূলক কার্যক্রমের গুরুত্বকে এখানে মোটেও খাটো করে দেখা হয় না। এ কথার প্রমাণ পাওয়া যাবে প্রত্যেক শনিবারের দিকে লক্ষ করলে। শনিবার সাপ্তাহিক পরীক্ষা শেষে শিক্ষার্থীরা কবিতা আবৃত্তি, বিতর্ক, উপস্থিত বক্তৃতা প্রভৃতির অনুশীলন করে এবং টেবিলটেনিস, ক্যারাম, দাবা, ভলিবল ইত্যাদি খেলায় অংশগ্রহণ করে থাকে। তাছাড়াও বিভিন্ন জাতীয় দিবসে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে। শিক্ষার্থীদের পুঁথিগত বিদ্যায় আবদ্ধ না রেখে চৌকশ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলাই আমাদের উদ্দেশ্য।

হলি ল্যান্ড কলেজ দেশের উত্তর জনপদে শিক্ষাবিস্তারের বিশেষ অবদান রাখতে অঙ্গিকারবদ্ধ। শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড। এ কথাটি এ প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও পরিচলনা পর্ষদ অন্তরে ধারণা করে। আমরা শিক্ষা বিস্তার অবিস্মরণীয় অবদান রাখতে চাই। আমরা সকলের দোয়া প্রার্থী।