হলি ল্যান্ড কলেজের অগ্রযাত্রা

শুভ উদ্বোধন :

জুলাই, ২০১২ সোমবার দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে প্রথম প্রযুক্তিসমৃদ্ধ ডিজিটাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলি ল্যান্ড কলেজদিনাজপুরএর আনুষ্ঠানিক শুভ উদ্বোধন করা হয়। কলেজের উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেফলক উন্মোচনকরেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তৎকালীন মাননীয় ভূমিপ্রতিমন্ত্রী বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রাথমিক গণশিক্ষামন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান এমপি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের তৎকালীন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বর্তমান সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব .এইচ. মাহমুদ আলী এমপি, জনাব খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, সাবেক এমপি জনাব সুলতানা বুলবুল, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক মাননীয় চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. আলাউদ্দিন মিয়া, জেলা পরিষদের প্রশাসক জনাব মো. আজিজুল ইমাম চৌধুরী, সাবেক পুলিশ সুপার জনাব মো. ময়নুল ইসলাম, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, রংপুর অঞ্চলের তৎকালীন উপপরিচালক জনাব মো. রফিকুল ইসলাম, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক কলেজ পরিদর্শক সাবেক সচিব জনাব মো. আমিনুল হক সরকার দিনাজপুর পৌরসভার সম্মানিত মেয়র জনাব সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অত্র কলেজের পরিচালনা পর্ষদএর সম্মানিত সদস্যবৃন্দ, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, নবাগত ছাত্রছাত্রী, অভিভাবক, অসংখ্য গুণী সুধীজনসহ ইলেকট্রনিক মিডিয়ার স্থানীয় জাতীয় পর্যায়ের সাংবাদিকবৃন্দ।

সেই থেকে শুরু হলো হলি ল্যান্ড কলেজের অগ্রযাত্রা। দেখতে দেখতেই কলেজটি ষষ্ঠ বৎসরে পদার্পণ করলো। সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে একাডেমিক সাফল্যসহ সহপাঠ্যক্রমিক শিক্ষার ক্ষেত্রেও এসেছে বেশ কিছু অর্জন। জেলা ভিত্তিক বিতর্ক প্রতিযোগিতায়, গণিত অলিম্পিয়াডে, পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে কলেজের শিক্ষার্থীরা ঈর্ষণীয় সাফল্য এনে দিয়েছে।

তবে সর্বাধিক সন্তোষের বিষয় হলো কলেজটি ২০১৪ সালে ১ম ব্যাচেই এইচ.এস.সি. পরীক্ষায় দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড ৩য় স্থান লাভের গৌরব অর্জন করে এবং ২০১৫ ২০১৬ সালে এইচ.এস.সি. পরীক্ষায় দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অধিক সংখ্যক পরীক্ষার্থী জি.পি. সহ শতভাগ পাসের গৌরব অর্জন করে, যা কলেজটিকে একটি শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করাতে সক্ষম হয়েছে। সুদক্ষ নিবেদিত প্রাণ একদল প্রবীণ নবীণ শিক্ষকবৃন্দের শিক্ষাদানে, কর্মকর্তাকর্মচারীদের দিবারাত্র পরিশ্রমে কলেজ পরিচালনা পর্ষদএর নিবিড় তত্ত্বাবধানে আগামী দিনগুলোতেও কলেজটি অতীতের একাডেমিক সাফল্যগুলো ধরে রেখে আরো উন্নতির পথে এগিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ্।

কলেজটি শিক্ষার মানোন্নয়নে যেমন তৎপর আন্তরিক, তেমনি শিক্ষার্থীর মনোবিকাশ সৃজনশীলতা তৈরিতেও মনোযোগী। নিয়মিত শিক্ষাদানের পাশাপাশি শিক্ষার্থীকে মানসিক অবসর আনন্দ দানের জন্য বার্ষিক বনভোজন, বার্ষিক ক্রীড়া সাংস্কৃতিক সপ্তাহ উদ্যাপন, আড়ম্বরপূর্ণভাবে নবীনবরণ অনুষ্ঠান ইত্যাদি পালন করা হয়ে থাকে। ফলে শিক্ষার্থীরা নতুন করে উজ্জীবিত হয়ে আনন্দচিত্তে পড়াশোনায় মনোযোগী হয়ে ওঠার সুযোগ পায়। এভাবে চলতে থাকলে প্রতিষ্ঠানটি অঞ্চলের শিক্ষার্থী অভিভাবকগণের আশাআকাঙ্খার মূর্ত প্রতীকে পরিণত হতে পারবে বলে আশা করা যায়।

অত্যন্ত আনন্দের বিষয় হলো ইতোমধ্যেই যেসব শিক্ষার্থী এইচ.এস.সি পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ হয়ে কলেজটি থেকে বিদায় নিয়েছে তারা এখন দেশের স্বনামধন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে, মেডিকেল কলেজ, বুয়েট, রুয়েট, কুয়েট, বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এমনকি বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছে। এসব মেধাবীমুখ আগামীতে কলেজের সম্মান সুনাম বয়ে আনবে সন্দেহ নেই।

তাই কলেজের অগ্রযাত্রায় সামিল হতে সকল মহলের সহযোগিতা আমরা কামনা করছি যাতে করে প্রতিষ্ঠানটি দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপ লাভ করে। হলি ল্যান্ড কলেজের অগ্রযাত্রা নির্বিঘœ হোক।

২য় ক্যাম্পাসের শুভ উদ্বোধন :

২০১৪ সালের ১১ আগস্ট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম নাহিদ সকাল ১০:০০ টায় হলি ল্যান্ড কলেজ, দিনাজপুরএর দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের শুভ উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সরকার দলীয় হুইপ জনাব মো. ইকবালুর রহিম এম.পি, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের মাননীয় চেয়ারম্যান জনাব আহমেদ হোসেন, সাবেক জেলা প্রশাসক জনাব মো. শামীম আল রাজী, জেলা শিক্ষা অফিসার জনাব মো. এনায়েত হোসেন এবং  অত্র কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রফেসর মো. আব্দুর রউফ এবং কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ।